Kurulus Osman

কুরুলুস উসমান পর্ব ১৩৭ বাংলা

Kurulus Osman Episode 137 in Bangla Review

একটি নতুন এপিসোডে আপনাকে স্বাগতম, কুরুলুস উসমান ভলিউম ১৩৭ এর দ্বিতীয় ট্রেইলার প্রকাশ পেয়েছে, দ্বিতীয় ট্রেইলারটি ছিল একশনে পরিপূর্ণ, ট্রেইলার দেখেই বুঝা যাচ্ছে, আগামী পর্বে উসমান বের রাজত্ব দেখা যাবে,, সিজন ৫ শুরু হওয়ার পর থেকেই প্রতিটি পর্বে উসমান বেকে দূর্বল দেখানো হচ্ছিল, এই বিষয়টিতে কুরুলুস উসমান সিরিজ প্রেমীরা একটু বিরক্তই হচ্ছিল,

সমালোচনা হচ্ছিল কেন উসমান বেকে এতো দূর্বল দেখানো হচ্ছে,,কিন্তু ভলিউম ১৩৭ এর ট্রেইলার দেখে মনে হচ্ছে আগামী পর্ব থেকেই উসমান বের শক্তি ও সাহসীকতা দেখানো শুরু হবে, পুরো ট্রেইলার জুরে উসমান বে, শক্র বাহিনী ও সুলতান ইয়াকুব বেকে যেভাবে হুমকে দিয়ে আসছে, এতেই প্রতিয়মান হচ্ছে আগামী পর্বে চলবে উসমান বের দাপট, আজকের ভিডিওতে ভলিউম ১৩৭ এর দ্বিতীয় ট্রেইলার বিশ্লেষণ করবো,

উসমান বে, ইয়াকুব বেকে সুলতান হিসেবে অস্বীকার করছেন, এরফলে কি কি পরিস্থিতি তৈরী হতে পারে,, সেই সাথে সাদেত হাতুন কে বন্দী করেছেন বালা হাতুন, অপরদিকে আলাউদ্দিন বে ও গনজা হাতুনের প্রেম শুরু,,গনজা হাতুন কি সত্যিই প্রেম করবে নাকি তার মার কথা মতো আলাউদ্দিন বেকে ফাঁদে ফেলবেন, এবং উরহান ও মেহমেদ বে কিভাবে উদ্ধার হবেন৷ সব প্রশ্নের উত্তর জানতে, ভিডিওটি শেষ পর্যন্ত দেখতে থাকুন।

শুরুতেই আমরা আলোচনা করবো উসমান বে এবং ইয়াকুব বের মধ্যোকার সুলতানী ক্ষমতা নিয়ে লড়াইয়ের বিষয়টি নিয়ে। উসমান বে কিভাবে সুলতান কে অস্বীকার করবেন, আগুন ঝড়া এই ট্রেইলারের শুরুতেই দেখা যায়, উসমান বে বলছেন “যে সত্য কথা বলতে পারে না, যে চুপ করে থাকে। সে কখনোই সুলতান হওয়ার যোগ্যতা রাখে না”

আমরা আমাদের আগের এক ভিডিওতে বলেছি উসমান বে এবং ইয়াকুব বের মধ্যে ক্ষমতার লড়াই দেখা যাবে। ট্রেইলারে তার প্রতিফলন ফুটে উঠেছে। ইয়াকুব বে উসমান বের কাছ থেকে বাইয়াত বা সীকারক্তি নেওয়ার জন্য বিভিন্ন চক্রান্ত করেছেন,

আমরা দেখেছি ইয়াকুব বে বাইজেন্টাইন দের হাত থেকে উসমান বের জীবন বাচানোর চক্রান্ত করেছেন এছাড়াও উসমান বে যেই দূর্গ জয় করার জন্য গিয়েছেন এবং জেরকুতায় বেকে উদ্ধার করতে গিয়েছেন, সেই দূর্গ কোনো শর্ত ছাড়াই উসমান বেকে দিয়েছেন সকল বীমদের সামনে, উসমান বের সন্মান কমানোর চেষ্টা করেছেন, এত সব চক্রান্ত করে উসমান বের কাছ থেকে সুলতান হওয়ার স্বিকারক্তি নিয়েছেন,

আমরা আমাদের আগের এক ভিডিওতে এটাও বলেছিলাম, ইয়াকুব বেকে বাইয়াত প্রদানের পিছনে উসমান বের বড় পরিকল্পনা আছে। ইয়াকুব বে এখানে একটি বড় ভুল করেছেন, সে তারাহুরো করে কোন চিন্তা ভাবনা ছাড়াই যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়েছে,,এবং তার ছেলেকে সেনা প্রধান করে যুদ্ধে পাঠিয়েছে, এবং তারা শক্রর ফাঁদে পরে উরহান ও মেহমেদ বে দুজনেই বাইজেন্টাইন বাহিনীর হাতে বন্দী,

এই সুযোগটা কাজে লাগাবেন উসমান বে, সে মালহুন হাতুন ও কিছু সেনাদের গোপনে কেষ্টেল দূর্গে পাঠাবেন,,এবং তারা সফল ভাবে উরহান ও মেহমেদ বেকে উদ্ধার করতে পারবে,, অন্যদিকে ইয়াকুব বে উসমান বের বিরুদ্ধে যেয়ে বাইজেন্টাইন দের সাথে চুক্তি করতে কেষ্টেল দূর্গে যাবে, কিন্তু তখনি খবর আসবে উরহান ও মেহমেদ বেকে উসমান বে উদ্ধার করে নিয়ে গিয়েছেন,,,যেমনটা আপনারা ট্রেইলারে দেখেছেন,

এই সংবাদ পাওয়ার পর কেষ্টেল দূর্গের টেকফুর ইয়াকুব বের সামনেই রাগ্বান্নিত হয়ে বলছেন,,,এই চুক্তিনামা মানি না,,,এছাড়াও ট্রেইলারে দেখা যায়,, আয়হান আগা খুবই রেগে আছেন এবং নিজের ঘরের জিনিস ভাংচুর করছেন,,,এই দৃশ্যটিও প্রমান করে তার রাগের কারন উসমান বে মালহুন হাতুনের মাধ্যমে উরহান বে ও মেহমেদ বেকে উদ্ধার করেছেন৷

এরপর উসমান বে, ইয়াকুব বের ভুলগুলো মনে করিয়ে দিয়ে তার ছেলে মেহমেদ বেকে ইয়াকুব বের হাতে তুলে দিবেন, এবং বলবেন,,আমি আমার আনুগত্যের অঙ্গিকার তুলে নিলাম” এবং এখন থেকে আমিই এখানকার সুলতান, আপনি নন। উসমান বের সাহসীকতা আর ইয়াকুব বের বোকামি দেখে, সকল বীমেরাও উসমান বের পক্ষে থাকবে, কারন ইয়াকুব বের অন্যায় তাদেরকেও গ্রাস করে নিচ্ছে তারা সেটা বুঝে গেছে, সুতরাং বুঝাই যাচ্ছে উসমান বে এবং ইয়াকুব বের মধ্যে ক্ষমতার লড়াই ভালো ভাবেই ফুটে উঠবে সামনের পর্ব গুলোতে।

ট্রেইলারের আরো একটি দৃশ্যে দেখা যায়, আলাউদ্দিন বে গনজা হাতুনের চোখের পানি মুছে দিচ্ছে,, মূলত তাদের প্রেম কাহিনি শুরু হয়ে গেলো,,কিন্তু সমস্যা হচ্ছে,, গনজা হাতুনের মা তো বলেছে আলাউদ্দিন বের সাথে প্রেমের অভিনয় করতে,,তাহলে গনজা হাতুন কি সত্যিই অভিনয় করবেন? গনজা হাতুন হয়তো আলাউদ্দিন বেকে সত্যি সত্যিই ভালোবাসবে কিন্তু পরিস্থিতি তাকে খারাপ দিকে নিয়ে যাবে,, উসমান বে যখন ইয়াকুব বেকে সুলতান হিসেবে অস্বীকার করবেন, ইয়াকুব বে অপমানিত হবেন, উসমান বে ও ইয়াকুব বের মাঝে শক্রতা বাড়বে,

অপর দিকে বালা হাতুন গনজা হাতুনের মা সাদেত হাতুন কে বন্দী করেছে,,এই সব পরিস্থিতির প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য ইয়াকুব বে ও তার পরিবার গনজা হাতুন কে ব্যবহার করে আলাউদ্দিন বের মাধ্যমে উসমান বেকে পরাজিত ও অপমানিত করতে চায়বে,

বাবা মার এমন পরিস্থিতিতে গনজা হাতুন বাধ্য হয়ে আলাউদ্দিন বেকে ব্যবহার করে উসমান বেকে বিপদে ফেলতে চায়বেন,,তবে বালা হাতুন যেহেতু বিষয়টি জানেন সে হয়তো আলাউদ্দিন বেকে সতর্ক করে রাখবেন,,এরপরও সাময়িক সময়ের জন্য গনজা হাতুন অভিনয় করতে বাধ্য হবেন,,তবে আশা করা যায় সব জল্পনা কল্পনা শেষে আলাউদ্দিন বে ও গনজা হাতুনের বিয়ে হবে৷ read more

Watch English Subtitles

কুরুলুস উসমান ১৩৭ বাংলা সাবটাইটেল

Server-1

Server-2

Server-3

Server-4 with ads

Click to Download

Telegram Link

OK.RU LINK

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button